ইন্ডাকট্যান্স কাকে বলে? ইন্ডাকট্যান্স এর মৌলিক বিষয়গুলো সম্বন্ধে বিস্তারিত - BLOGS71

ইন্ডাকট্যান্স

ইন্ডাকট্যান্স



ইন্ডাকট্যান্স কাকে বলে? ইন্ডাকট্যান্স এর মৌলিক বিষয়গুলো সম্বন্ধে বিস্তারিত


ইন্ডাকট্যান্স হচ্ছে মূলত ইন্ডাক্টরের ক্ষমতা বা সামর্থ্য যার দ্বারা সেই ইন্ডাকট্যান্স (Inductance) পরিবর্তনশীল কারেন্টকে অর্থাৎ AC কারেন্ট পরিবহনে বাধা দেয় এবং এটি অনবরত কাজ করতে থাকে।

অন্যদিকে ইন্ডাকট্যান্স (Inductance) DC কারেন্ট পরিবহন হতে বাধা দেয় খুব অল্প সময়, যখন এটি স্টিডি স্টেট অবস্থায় চলে আসে তখন সে একটা শর্ট পাত হিসেবে কাজ করে যার Resistibility  শূন্য হয়, তখন সেটি আর Direc current পরিবহন হতে বাধা দেয় না। সেটি তখন একটা রেজিস্টর এর মত কাজ করে থাকে।

যদি অন্যভাবে বলতে গেলে বলতে পারি,  ইন্ডাকট্যান্স (Inductance) হচ্ছে Inductor এর এমন এক ক্ষমতা বা Ability  যার দ্বারা সে নিজের মধ্যে Magnetic Field  আকারে অস্থায়ীভাবে Energy Store   করে। আবার প্রয়ােজনে সার্কিটকে Discharge  করে দেয়। ইন্ডাকট্যান্সকে L দ্বারা প্রকাশ করা হয় এর একক হচ্ছে হেনরি ( Henry)  ।

যদি আরো সহজ ভাষায় বলি, ইন্ডাক্টর (Inductor) হচ্ছে একটা তারের কয়েল বা অনেকগুলাে প্যাঁচের সমষ্টি। এককথায় একটা তারকে একাধিকবার প্যাঁচিয়ে প্যাঁচিয়ে যে কয়েল বানালে যা হয় তাই হচ্ছে   একটা ইন্ডাক্টর।

এখন ইন্ডাকট্যান্স (Inductance)   এর আসল বিষয়টা আলোচনা করি:


আমরা যদি একটি Inductor এ অর্থাৎ তারের একটি  Coil এ ভােল্টেজ Supply দিই তাহলে অবশ্যই কয়েল এর মধ্য দিয়ে Current  প্রবাহিত হবে। প্রকৃত পক্ষে AC কারেন্ট কয়েল বা তারের সার্ফেস দিয়ে যায় আর DC কারেন্ট সার্ফেস ও ভিতর দিয়ে যায়।

আমরা জানি যে, Coil এর মধ্য দিয়ে Current  প্রবাহিত হলে এর চারপাশে Flux তৈরি হয়, অর্থাৎ Magnetic field   তৈরি হয়। একে ইলেক্ট্রো ম্যাগনেটিক ফিল্ড বা Electro Magnet (ইলেক্ট্রো ম্যাগনেট) বলে।

যদি কয়েল এর মধ্য দিয়ে Direct current প্রবাহিত হয় তাহলে কয়েল এর চতুর্দিকে স্থির
Magnetic field তৈরি হয়। আর যদি alternative current প্রবাহিত হয় তাহলে কয়েল এর  চতুর্দিকে পরিবর্তনশীল Magnetic fields   তৈরি হয়।

Current এর পরিবর্তন এর সাথে সাথে Magnetic field   এর ও পরিবর্তন হয়। যেমনঃ coil এ যদি বেশি current প্রবাহিত হয় তাহলে বেশি Flux তৈরি হবে অর্থাৎ শক্তিশালী magnetic field তৈরি হবে,   আর যদি অল্প current প্রবাহিত হয় তাহলে অল্প Flux তৈরি হবে মানে দূর্বল Magnetic field .

এখন আমরা জানি যে, ফ্যারাডের Electro Magnetic Induction   সূত্র অনুযায়ী, যদি কোন coil এ পরিবর্তনশীল কারেন্ট মানে AC কারেন্ট প্রবাহিত হয় তাহলে coil এর চতুর্দিকে পরিবর্তনশীল Flux তৈরি হয়। এই ফ্লাক্স যদি তার আশে পাশে কোন কয়েল পায় তাহলে সেই কয়েলকে Flux cut করে ফলে সেই কয়েলে Voltage indused  করে।

আমরা জানি,

Generating voltage = – N dϕ / dt বা L di/dt

এখানে, N হচ্ছে coil এর টার্ন বা প্যাঁচ,
 dϕ/dt হচ্ছে পরিবর্তনশীল Flux,
 L হচ্ছে coil এর inductance  এবং
di/dt হচ্ছে পরিবর্তনশীল current.

প্যাঁচের সংখ্যা যত বেশি হবে Generating voltage ও তত বেশি হবে আবার Flux যত বেশি পরিবর্তনশীল হবে Generating voltage ও তত বেশি হবে।

অল্টারনেটিং এর Frequency  যত বেশি হবে current  ও তত বেশি পরিবর্তনশীল হবে কাজেই Flux ও তত বেশি পরিবর্তনশীল হবে।

যখন coil এর মধ্য দিয়ে পরিবর্তনশীল মানে AC current  প্রবাহিত হবে তখন coil এর চতুর্দিকে পরিবর্তনশীল ফ্লাক্স তৈরি হবে।

এখন এই পরিবর্তনশীল flux পাশে কোন কয়েল না পেয়ে নিজ কয়েলে flux cut করে ভােল্টেজ উৎপাদিত করবে।

এই  Generating voltage কয়েলে current  প্রবাহিত করলে এতে নতুন flux তৈরি হবে। এখন এই নতুন flux ওরিজিনাল flux কে তৈরি হতে বাধা দিবে। তার মানে হচ্ছে কয়েলের Generating current  Original  কারেন্টকে কয়েলে slow  হতে বাধা দিবে।

এটিই হচ্ছে coil এর সেলফ inductance । যার কারনে Generating voltage   ইকুয়েশন এর আগে একটি (-) চিহ্ন দেয়া হয়। এ  চিহ্ন  দিয়েছেন বিজ্ঞানী Lenz। তিনি বলেছেন Generating Effect এমন যে, সেটা যে কারনে তৈরি হয় সেই কারন কেই বাধা দেয়।

যদিও inductor  পরিবর্তনশীল কারেন্ট প্রবাহিত হতে বাধা দেয় তার Self inductance  এর কারনে কিন্তু কারেন্ট ম্যাগ্নিচুডকে বাধা দেয় না। যেমন: কোন সার্কিটে 10 এম্পিয়ার current  প্রয়ােজন হলে inductor  10 এম্পিয়ারই current supply    করবে কিন্তু self inductance  এর কারনে কারেন্ট বাধা প্রাপ্ত হয়ে supply  করবে।

অন্যদিকে ইন্ডাক্টরে DC কারেন্ট যার frequency  শূন্য মানে অপরিবর্তনশীল current supply   করলে ইন্ডাক্টর ধীরে ধীরে magnetic field   আকারে এনার্জি জমা করবে। যতক্ষণ না সে একটি শক্তিশালী Electro magnet-  এ পরিণত হয় ততক্ষণ সে current  পরিবহণ হতে বাধা দিবে। যখন সে সম্পন্ন রুপে একটি শক্তিশালী ম্যাগনেটে পরিণত হবে তখনই সে আর কারেন্ট পরিবহন হতে বাধা দিবে না।

কারণ হলো সে একটা স্থির Electro magnet এ পরিণত হবে যার flux অপরিবর্তনশীল যেটা নিজ কয়েলে voltage উৎপাদন  করতে পারবে না, কাজেই সেটা একসময় আর current  পরিবহণে বাধা দিবে না ফলে সেটা একটা Resistor এর মত আচরণ করবে।

সাধারণত inductor এর ব্যবহার ব্যাপক হারে হয় যেমনঃ জেনারেটর, মোটর, ট্রান্সফরমার ইত্যাদিতে।

Post a Comment

0 Comments